Continue Shopping Order Now
আনারস ইলিশ

এটি মূলত আমার শাশুড়ির রেসিপি। খুব সহজ এই মজার খাবার টি একদম তার 

স্টাইলে করা। আমি রান্নাটা একটুও মডিফাই করার ট্রাই করি না কখনো। অাম‍ার এই

 পছন্দের রান্নাটি শেয়ার করছি আজ আপনাদের সাথে..


উপকরন:

ইলিশ মাছ-৬পিস

হুলুদ গুড়া- আধা চা চামচ+আধা চা চামচ

মরিচ গুড়া- অাধা চা চামচ

জিরা গুড়া-১ চা চামচ

আদা বাটা – সামান্য

লবন- আন্দাজ মতো

চিনি- ২ চা চামচ

দারচিনি- ১ টুকরা ছোট

তেজপাতা- ছোট ২টি

এলাচ-২টি

পেয়াজ মিহি কুচি-১কাপ

আনারস কুড়িয়ে নেওয়া/ কিমা করা-১ কাপ

আনারসের রস-১কাপ

কাচামরিচ ফালি -৮/১০টি

সয়াবিন তেল-আধা কাপ

ধনেপাতা কুচি- সামান্য


প্রনালী:

ভালো করে ধুয়ে নেওয়া মাছ গুলোতে আধা চামচ হলুদ,মরিচ আর লবন দিয়ে মাখিয়ে 

নিন। কড়াই ভালো করে গরম করে মাছ টা ভেজে নিন। (ভাজা টা যেন এমন হয়, ভাজা 

ইফেক্ট টা বোঝা যায় কিন্তু মচমচে ভাজা হবে না) এবার এই তেলেই তেজপাতা, 

দারচিনি,এলাচ টা দিয়ে দিন। পেয়াজ টা সুন্দর বাদামি করে ভাজা হয়ে গেলে হলুদ,

 জিরা, লবন আর আদা বাটা দিয়ে খুব ভালভাবে সামান্য পানি দিয়ে মশলা টা কষিয়ে 

নিন। এখন কিন্তু আর মরিচ গুড়া দিব না। যতটা পানি কম ব্যবহার করা যাবে তত 

ভালো লাগবে খেতে।


মশলা কষা হয়ে গেলে কুড়ানো আনারস আর চিনি দিয়ে আবার মশলা টা কষান। চুলার 

আঁচ যেন মিডিয়াম থাকে। এবার মাছগুলো বিছিয়ে দিন আর আনারসের জুস টা দিয়ে 

দিন। চুলাটা কম আঁচে থাকবে। ঢেকে দিন। ৫ মিনিট পর মাছটা উল্টিয়ে দিন আর 

এবার যোগ করুন মরিচ ফ‍ালি গুলো আর ধনেপাতা। দমে রাখুন অারো কিছুক্ষন।তৈরি 

হয়ে গেল মজার আনারস ইলিশ। খেতে পারেন ভাত বা পোলাওর সাথে।


দুটি কথা…

১) অনেকে সরিষার তেলে এ রান্না টি পছন্দ করেন, আপনিও করতে পারেন। কিন্ত আমি প্রেফার করি না।

২) কুরানো আনারস দিতে না চাইলে ব্লেন্ড করতে পারেন। তবে আনারস টা একটু টক থাকলে খেতে বেশি ভালো লাগে।


 


Continue Shopping Order Now